রক্তশূন্যতা একটি মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা

বাংলাদেশে বিশেষ করে দরিদ্র পরিবারে নারী ও শিশুদের মধ্যে রক্তশূন্যতা একটি মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। বৃহস্পতিবার রাজধানীতে এক কর্মশালায় তারা এ কথা বলেন।

 

তারা বলেন, গ্রাম ও শহরের বস্তি এলাকাগুলোর দরিদ্র পরিবারের প্রায় অধিকাংশ নারী ও শিশু বিভিন্ন রকমের রক্তশূন্যতায় ভুগছে। এই সমস্যা দেশের স্বাস্থ্যখাতের জন্য একটি মারাত্মক বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

জনস্বাস্থ্য পুষ্টি ইনস্টিটিউট এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট ইন্টারএ্যাকটিভ (এমআই) এই কর্মশালার আয়োজন করে। এতে অন্যান্যের মধ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা কাদের, জনস্বাস্থ্য পুষ্টি ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আলমগীর আহমেদ এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট ইন্টাএ্যাকটিভের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. এস এম মুস্তাফিজুর রহমান বক্তৃতা করেন।

 

মুক্ত আলোচনায় পুষ্টিবিদ, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পদস্থ কর্মকর্তারা অংশ নেন।

 

ড. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, আয়রন এবং ফলিক এসিড ট্যাবলেট খাওয়ার ব্যাপারে পরামর্শ দিয়ে গর্ভবতী নারীদের রক্তশূন্যতা হ্রাস করা যেতে পারে। এছাড়া গর্ভবতী নারীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ ওষুধের ব্যবস্থাও করতে হবে।

 

তিনি আরো বলেন, দরিদ্র পরিবারের প্রায় সব গর্ভবতী মহিলাই রক্তশূন্যতায় ভোগে। তারা যাতে কম ওজনের বাচ্চা জন্ম না দেয়, সে জন্য গর্ভবতী সময়ে ২৭০ দিনের প্রতিদিনই একটি করে আয়রণ ও ফলিক এসিড ট্যাবলেট খাওয়াতে হবে।
Print
1681 মোট পাঠক সংখ্যা 5 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close