বিশিষ্ট ১০ ব্যক্তিকে নিরাপত্তা দেবে সরকার

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, দেশের বিশিষ্ট ১০ ব্যক্তিকে সরকার বিশেষ নিরাপত্তা দেবে।বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। বাংলাদেশ সচিবালয় রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) এই সংলাপের আয়োজন করে।
সংগঠনের সভাপতি শ্যামল সরকারের সভাপতিত্বে সংলাপ সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের সব মানুষেরই নিরাপত্তার দায়িত্ব রয়েছে আমাদের। তবে তাদের যেহেতু হুমকি দিয়েছে, সে কারণেই তাদের নিরাপত্তায় গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।jessoreexpress

তিনি বলেন, ব্লগারদের হত্যা আর দেশের বিশিষ্ট ১০ জনকে হত্যার হুমকির মধ্যে ভিন্নতা থাকতে পারে। এসব ঘটনা আল কায়েদা-আনসারুল্লাহ বাংলা টিম ঘটাচ্ছে না ওই নামে অন্য কেউ ঘটাচ্ছে তা অনুসন্ধানের বিষয়। কারা হুমকি দিচ্ছে, কী কারণে হুমকি দিচ্ছে তা গোয়েন্দা অনুসন্ধানে জানা যাবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান বলেন, বিশিষ্ট ১০ ব্যক্তি দেশ ও স্বাধীনতার কথা বলেন। আর যারা হুমকি দিচ্ছে তারা স্বাধীনতা ও দেশের অগ্রগতির বিপক্ষে। তবে ব্লগার হত্যা আর ১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকির মোটিভ ভিন্ন হতে পারে। এর পেছনে যে সংগঠনই জড়িত থাকুক না কেন অনুসন্ধান করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, যারা দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি চায় না তারাই বিশিষ্ট নাগরিককে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের নাম ব্যবহার করা হচ্ছে। এসব ঘটনার সঙ্গে আনসারউল্লাহ জড়িত নাকি অন্য কেউ ঘটিয়ে এদের নাম ব্যবহার করছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সমুদ্রপথে মানবপাচার নিয়ে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, সমুদ্রপথে ট্রলারে করে মানব পাচার বন্ধে সরকার জেলেদের আইডি কার্ড দেয়ার উদ্যোগ নিচ্ছে।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশে পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা আছে। অথচ কেউ কেউ দুই লাখ আবার কেউ কেউ এই সংখ্যাটা তিন লাখ বলছেন। কক্সবাজার, রাঙ্গামাটিসহ তারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে আছে।

সমুদ্রে ভাসমান অভিবাসীদের সম্পর্কে তিনি বলেন, এরা সবাই রোহিঙ্গা। জীবন বাঁচাতে তারা অবৈধ পথে মালয়েশিয়ায় রওনা রয়েছে। তবে বাংলাদেশের দু-একজন জেলে যেতে পারে। মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ভারতের মেঘালয় রাজ্যে চিকিৎসাধীন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ সম্পর্কে আসাদুজ্জামান খান বলেন, সালাহ উদ্দিন কীভাবে ভারতে গেলেন, সে বিষয়টি খতিয়ে দেখার দায়িত্ব ভারত সরকারের।

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিযার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেযা হয়েছে। খালেদা জিয়ার বিষয়ে আদালত যে নির্দেশনা দেবে পুলিশ সেভাবে কাজ করবে বলেও জানান স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, যাত্রাবাড়ীর বাস পোড়ানোর ঘটনায় খালেদা জিয়া হুকুম দিয়েছেন সে কারণে তাকে আসামি করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়া হয়েছে। এখন আর পুলিশের কোনো কাজ নেই। আদালত যে রায় দেবে সেই ভাবে পুলিশ দায়িত্ব পালন করবে।

তারেক রহমান প্রসেঙ্গ প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারেক রহমান রাষ্ট্রদোহী মামলার আসামি, তার বিরুদ্ধে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। তিনি ওই দেশে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন। ওই দেশ কী করে তা দেখার বিষয় আছে। তারপরও আমি বলবো তারেক রহমানকে দেশে ফিরে আনার চেষ্টা করছে সরকার।

Print
1008 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close