ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘাতের আশংকা যশোরের মনিরামপুর উপজেলার

এ বি সিদ্দীক,যশোর ।
নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা মতে সারা দেশে আগামী জুনের মধ্য অনুষ্ঠিত হতে যাচছে স্হানীয় ইউপি নির্বাচন। নির্বাচন কে কেন্দ্র করে সারাদেশের ন্যাই যশোরের মনিরামপুর উপজেলার ৩নং ভোজগাতী ইউনিয়ানেও চলছে আগাম নির্বানের গরম হাওয়া। স্হানীয় বিভিন্ন সূত্র থেকেজানা যাই গত নির্বাচনে সরকার দলীয় প্রাথীর ভরাডুবির পর এবার তা পুর্নদ্ধর করার জোর প্রচেষ্টা চলছে। এবারের নির্বাচনে সরকার সমার্থক দুই নেতা গত বারের পরাজিত প্রাথী জনাব মো: রাজ্জাক ও মো: শহিদুল ইসলাম নির্বচনে প্রাথী হবার জোর প্রচেষ্টা চালাছে বলে স্হানীয় সুত্র থেকে জানা গেছে।জনাব রাজ্জাক চেয়ারম্যন থাকা কালিন সময়ে নিজদলীয় নেতা কর্মিদের সাথে ভাল ব্যবহার না করা সন্ত্রাসীদের লালন পালন ও নানা প্রকার অপকর্মের সাথে জড়িয়ে পড়াতে গতনির্বাচনে তার ভরাডুবি হয়েছে দাবি করে তার পরিবর্তে মো: শহিদুল ইসলাম কে প্রাথীকরার জোর দাবি জানাছে শহিদুল সমার্থক নেতাকর্মিরা। তবে সাবেক চেয়ারম্যান মো:রাজ্জাক সকোল অভিযোগকে তার বিপক্ষে অপপ্রচার বলে উড়িয়ে দেন।অপর দিকে বর্তমান জামাত সমার্থিত চেয়ারম্যন নিজেরচেয়ার ঠিক রাখার জন্য চালাছে আগাম প্রচারণা।ফলে নিজেদের অবস্হা পাকাপক্ত করার জন্য শরিকদুই দলের মাঝে চলছে জোর প্রচেষ্টা।গত উপজেলা নির্বাচন কে কেন্দ্র করে স্হানীয় ২০ দলীয়জোটের মাঝে ফাটল দেখা দেই ফলে সরকার সমার্থক গণ সেটাকে কাজে লাগাতে চাইবে আগামী নির্বাচনে। জামাত নেতা দেলোয়ার হোসেন সাঈদী সাহেবের ফাসির রাই ঘোষণা হবার সাথে সাথে সারা দেশের মতো ৩নং ভোজগাতী ইউনিয়ানেও ব্যাপক আন্দোলন শুরু হয়।তাছাড়া বর্তমান চেয়ারম্যন জনাব হুমায়ন কবির মুক্তা ব্যাপক উন্নয়ন
করেছে তা ফলাও করে প্রচার করছে জামাত সমার্থক ভোটারগণ।ফলে নিজের দলীয়প্রভাব আর ক্লিন ইমেজ কে কাজে লাগিয়ে আবারো বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যন হবে বলে মনে করেন জনাব মুক্তা।অপর দিকে আন্দোলনে রাজপথে না থেকে ও সরকার সমার্থক নেতাদের সাথে লিয়াজো করে সাধারণনেতা কর্মির তোপের মুখে পড়েছে ,গতনির্বচনে বিএন পির পরাজিত প্রাথী জনাব মো:লাল্টু, তবে এবার তাকে নমিনিশন নাদেওয়ার সমভাবনা বেশি ।আগামীনির্বাচনে সাবেক বিএনপি সমার্থিত চেয়ারম্যন জনাব মো:কাওসার কে বিএনপির প্রাথী করার সমভাবনা বেশি বলে মনেকরেন লাল্টু বিরোধি সমার্থকগণ।তবে নিজেদের মাঝে বিরোধ না মেটাতে পারলে নির্বাচনেগত বারের মত ভরাডুবির সম্ভাবনা অনেক বেশি বলে মনে করে বিএনপি সমার্থকভোটারগণ।সরকার সমার্থক দুটো ভাগে বিভক্ত হওয়াতে তাদের মাঝে ও পরাজয়ের ভয় জেকেবসেছে।এই দিক থেকে জামাত সমার্থক বর্তমান চেয়ারম্যন জনাব হুমায়ন কবির মুক্তা অনেকনিরাপদ ।বিএনপি ও সরকার সমার্থক প্রাথী যদি আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে আসতে না পারেতবে নিজেদের মাঝে যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে হামলা ও পালটা হামলার মত ঘটনা।নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘাত এর আশংকাই সাধারণ ভোটারগণকে সংকিত করে তুলছে।

Print
2330 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close