‘হামরা পুলিশোক ধন্যবাদ জানাই’ শিশু শাহাদাতের বাবা বাদী সাজু মিয়া

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্ক: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের সেই সাংসদের গ্রেপ্তারের খবর শোনার পর গুলিতে আহত শিশু শাহাদাতের বাবা ও এই মামলার বাদী সাজু মিয়া আনন্দিত হয়ে বললেন, ‘হামরা পুলিশোক ধন্যবাদ জানাই। বুধবার রাত ১১টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত শিশুর শয্যার পাশে বসে ছিলেন শাহাদাতের মা সেলিনা বেগম, বাবা সাজু মিয়া, বড় ভাই শামীম। এ খবর জানার পর শাহাদাতের বাবা-মার মুখে হাসি ফুটেছে। তাঁরা আনন্দিত। এ সময় শিশুটি ঘুমিয়ে ছিল।
শয্যার পাশে দাঁড়িয়ে গুলিবিদ্ধ শিশুর বাবা ও এই মামলার বাদী সাজু মিয়া বলেন, ‘হামার এলাকার মানুষজন এই খবরটা টিভিত দেখিয়া হামাক ফোন দিছে। এই সময় হামরা পুরা পরিবার হাসপাতালোত আছি।’ আহত শিশুর মা সেলিনা বেগম বলেন, ‘এত রাইতোত এই খবরটা পায়া খুব আনন্দ লাগিল। হামার সুন্দরগঞ্জের মাইনষের আইজ খুশি লাগছে। মানুষ কইতেছিল এমপি মনে হয় অ্যারেস্ট না হইবে। পুলিশ অনেক কিছু পায় এবার তা দেখে দিছে।’
গত ২ অক্টোবর সকালে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের বাড়ি থেকে হাঁটতে বেরিয়েছিল স্থানীয় বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শাহাদত হোসেন ওরফে সৌরভ। এ সময় সাংসদ মনজুরুল ইসলাম ওরফে লিটন গুলি ছুড়লে শিশুটির বাঁ পায়ে একটি ও ডান পায়ে দুটি গুলি লাগে। ওই দিনই শিশু শাহাদতকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

Print
1083 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close