যশোরে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি সম্পন্ন,

স্পোর্টস ডেস্ক: যশোরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট আয়োজনে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে স্থানীয় আয়োজক কমিটি। দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে যশোরের জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর বলেন, অল্প সময়ে সবার প্রচেষ্টায় স্টেডিয়াম ফুটবল ম্যাচের জন্য শতভাগ উপযোগী করে তোলা হয়েছে। ১২ হাজার দর্শকের ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও দায়িত্ব পালন করবে। খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের আবাসনের জন্য তিনটি হোটেল বুক করা হয়েছে। এছাড়াও রেস্ট হাউজগুলো বুকিং দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ম্যাচের দিন বেলা ১২টায় গেট খুলে দেওয়া হবে। সাতটি গেট দিয়ে দর্শকরা প্রবেশ করতে পারবে। সবাই যাতে ফুটবল খেলা উপভোগ করতে পারে সেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, খেলোয়াড়দের জন্য তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় থাকবে। খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের জন্য নির্ধারিত তিনটি হোটেল সিলগালা করে পুলিশের তত্ত্বাবধানে নেওয়া হবে। প্রত্যেকটি খেলোয়াড়ের জন্য গানম্যান দেওয়াসহ সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

তিনি আরও বলেন, টুর্নামেন্ট চলাকালীন যশোর শহরের ইজিবাইক চলাচল বন্ধ রাখা হবে। এতে নির্বিঘ্নে মানুষ যাতায়াত করতে পারবে। এছাড়াও স্টেডিয়ামের বাইরে ঈদগাহ ময়দানে বড় পর্দায় খেলা দেখার আয়োজন করা হবে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ-সভাপতি বাদল রায় বলেন, আমরা চ্যালেঞ্জ নিয়ে যশোরে এসেছি। নানা সংকট ছিল ঠিক, কিন্তু যশোরের মানুষ ঐক্যবদ্ধ। সাবেক খেলোয়াড়, সংগঠক ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় মাঠ প্রস্তুত হয়েছে। আয়োজনে আমরা শতভাগ সন্তুষ্ট।

মাঠ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের গ্রাউন্ড কমিটির চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান বাবলু। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ম্যাচ কমিশনারের কাছে মাঠ বুঝিয়ে দেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজ্জামান মিঠুসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা। ০৮ জানুয়ারি পর্দা উঠছে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের চতুর্থ আসরের। আন্তর্জাতিক মানের এ টুর্নামেন্টের ৪টি খেলা অনুষ্ঠিত হবে যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে।

এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। আসন্ন আসরে বাংলাদেশ ছাড়াও কম্বোডিয়া, মালয়েশিয়া, বাহরাইন, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও মালদ্বীপ অংশ নেবে। এবার আটটি দল নিয়ে শুরু হবে আসরটি। যার মধ্যে ছয়টি বিদেশি ও দুটি দেশি দল রয়েছে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ থেকে অংশ নেবে দুটি দল। জাতীয় দল ছাড়াও বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল অংশ নিয়েছে। ৮টি দল দু’গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে। গ্রুপ ‘এ’ তে স্বাগতিক বাংলাদেশের সঙ্গী মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা ও নেপাল। আর ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে কম্বোডিয়া, বাহারাইন, মালদ্বীপ ও বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দল। টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ১৮ জানুয়ারি ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। গতবারের ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মালয়েশিয়া।

Print
407 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close