ঢাবিতে কেন মেট্রোরেলের রুট/ স্টেশন, উত্তর পেয়ে গেছি

রেজাউদ্দৌলা প্রধান : মেট্রোরেলের রুট/ স্টেশন কেনই বা ঢাবিতে হতে হবে, ঢাবির পাশ দিয়ে নয় কেন?-প্রশ্নটার উত্তর খুঁজছিলাম। মনে হয় উত্তরটা পেয়ে গেছি।
মেট্রোরেলের স্টেশন যে ঢাবি ক্যাম্পাসের উপর দিয়ে হতে যাচ্ছে সেটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ইচ্ছের কারণে। তিনি চান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যেন দ্রুত ও নির্বিঘ্নে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসা-যাওয়া করতে পারে। সত্যিই তো, ১০/১৫ মিনিটের মধ্যে যদি কোন শিক্ষার্থী উত্তরা থেকে ক্যাম্পাসে আসতে পারে তাহলে এর চেয়ে বড় সুবিধা এই জ্যামের শহড়ে আর কী হতে পারে। তাই হয়ত শাহবাগ/মৎস্যভবন নয় বরং টিএসসি/দোয়েল চত্বরে স্টেশনের কথা ভাবা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী আরো জানিয়েছেন, এছাড়া মেট্রোরেল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশ দিয়ে যাবে রাজু ভাস্কর্যের উপর দিয়ে নয়।
‌তাইলে তো আর সমস্যা থকার কথা নয়। শিক্ষার্থীদের এক দিনের কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং যখন যুক্তিযুক্ত ব্যখ্যা দিয়েছেন তাহলে আর বিরোধিতা নয়। কেননা বিরোধিতার খাতিরে আমরা বিরোধিতা না করে দেশের উন্নয়নে শামিল হই।
অতীতে আমরা দেখেছি বিভিন্ন ইস্যুতে আন্দোলন করে, সাধারণ শিক্ষার্থীদের আবেগকে কাজে লাগিয়ে অনেকেই অনেক ধরনের ফায়দা লোটে। এদের ব্যাপারে সাবধান থাকাই শ্রেয়। কেননা এবারো তাই হবে মনে হচ্ছে। অল রেডি ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করে তোলার একটা গ্রাউন্ড তৈরীর চেষ্টা বিভিন্নভাবে শুরু হয়ে গেছে। কতিপয় মিডিয়ায় ‘কানে প্লাগ লাগান: ঢাবি ছাত্র-ছাত্রীদের ও শিক্ষকদেরকে প্রধানমন্ত্রী’ টাইপ শিরোনামে নিউজ করে উষ্কানি দেয়া শুরু হয়ে গেছে। সাংবাদিকতার ছাত্র হিসেবে জানি. এই সংবাদে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে শিরোনাম করা যেত। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য নিয়ে এরপর হবে ফেসবুক ট্রল। উষ্কানির অংশ ছাড়া এগুলো কী । মোটেও শুভ লক্ষণ না।

রেজাউদ্দৌলা প্রধান
শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Print
709 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close