বেনাপোল-পেট্রাপোল চেকপোস্ট দিয়ে রেকর্ড সংখ্যক যাত্রী পারাপার

এক্সপ্রেস ডেস্ক: বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট দিয়ে গত কয়েক দিন রেকর্ড সংখ্যক পাসপোর্টধারী যাত্রী বাংলাদেশ ও ভারতে যাতায়াত করছে। চলতি মাসের ১ জুলাই থেকে ১০ জুলাই  সকাল ১১টা পর্যন্ত  ৫৬ হাজার পাসপোর্টধারী যাত্রী বেনাপোল-হরিদাসপুর চেকপোস্ট দিয়ে যাতায়াত করেছেন। আর এ থেকে সরকার রাজস্ব পেয়েছে প্রায় এক কোটি সাড়ে ৪৩ লাখ টাকা। যাত্রীদের স্বজনদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ, চিকিৎসা, ব্যবসা, কেনাকাটা ও বেড়ানোর উদ্দেশে যাতায়াত অন্য যে কোনও সময়ের চেয়ে কয়েকগুন বেশি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

এসব যাত্রীর মধ্যে ভারতীয় হাইকমিশনের দেওয়া ঈদ প্যাকেজের ফ্রি ভিসা পাওয়া ৬০ হাজার বাংলাদেশি যাত্রীও রয়েছেন। ঈদ প্যাকেজ ভিসার যাত্রীরা বেনাপোল ছাড়াও বিমান ও ট্রেনসহ বিভিন্ন স্থল পথে ভারতে যাতায়াত করেছেন। বেনাপোল চেকপোস্টের কাজ দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ হওয়ার পর ভারতীয় চেকপোস্টে ঢুকার সঙ্গে সঙ্গে তাদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে। ওপারের ইমিগ্রেশনের কাজ ধীর গতিতে চলার কারণে দীর্ঘলাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেন।

রবিবার সকালে চেকপোস্টে গিয়ে দেখা যায়, ভারতে প্রবেশের প্রধান গেট থেকে নো-ম্যান্সল্যান্ড হয়ে আশে পাশের মাঠ ও বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্টের ইমিগ্রেশন ও শুল্ক ভবনের সামনে ছিল যাত্রীদের লম্বা লাইন। যে কারণে বৃদ্ধ-বৃদ্ধাসহ শিশুদের খুব কষ্ট হয়েছে বলে জানা যায়। অনেক রোগীকে রাস্তার উপর বসে থাকতে দেখা গেছে। যাত্রীদের লাইন ঠিক রাখতে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়।বিশেষ করে গত শুক্রবার ও শনিবার যাত্রীদের চাপ ছিল রেকর্ড সংখ্যক ।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ওসি ইকবাল মাহমুদ জানান, এবার ঈদে ভ্রমণ পিপাসু মানুষের ভারত ভ্রমণের চাপ অন্য সময়ের চেয়ে অনেক বেশি ছিল। আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গেও দেখা করাসহ ঈদ করতে ভারত থেকে এসেছেন অনেককে। ঈদের ছুটি শেষে বাংলাদেশিরাও ফিরতে শুরু করেছেন। তবে কম জনবল নিয়ে যাত্রীদের সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে পুলিশ-বিজিবিকে। তারপরও যাত্রী সেবায় দ্রুত কাজ করছেন ইমিগ্রেশনের পুলিশ কর্মকর্তারা।

Print
619 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close