রাজশাহতে যৌতুক দাবিতে গৃহবধুর হাত-পা ভেঙ্গে দিলেন স্বামী

এক্সপ্রেস ডেস্ক: রাজশাহী নগরীতে যৌতুক দাবিতে রিফাহ্ তাসফিয়া সালাম (২১) নামের এক গৃহবধুর হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছেন স্বামী। গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিসি সেন্টারে ভর্তি রয়েছেন ওই গৃহবধু।

মঙ্গলবার এঘটনায় নগরীর রাজপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন ওই গৃহবধুর মা হোসনে আরা পারভীন।

আহত রিফাহ্ তাসফিয়া সালাম নগরীর ডিঙ্গাডোবা এলাকার শামিউল হক সোহাগের স্ত্রী। কয়েক বছর প্রেমের পর দুবছর আগে ঘর বাঁধেন তারা। এ দম্পতির ছয় মাস বয়সি এক মেয়ে সন্তানও রয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমানুল্লাহ। তিনি বলেন, ঘটনা তদন্ত করছেন থানার উপপরিদর্শক মাহবুবুর রহমান। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু হয়েছে। খুব শিগগিরই জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে বলে জানান ওসি।

অভিযোগের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, বিয়ের পর থেকেই যৌতুক দাবিতে প্রায় স্ত্রীকে নির্যাতন করতেন সোহাগ। এরই মধ্যে মেয়ের সুখে কথা ভেবে সোহাগকে দেড় লাখ টাকা দিয়েছে তাসফিয়ার পরিবার। তবুও কমেনি নির্যাতনের মাত্রা। উল্টো যৌতুক দাবিতে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে সোহাগ ও তার পরিবারের।

সোমবার বিকেলে সোহাগ, তার মা জাহানারা বেগম সুজি (৫০), বাবা ফজলুল হক (৫৬), ভাই ফয়সাল (৩০) ও সজিব (২৮) লোহার পাইপ দিয়ে তাসফিয়াকে বেধড়ক পেটান। খবর পেয়ে ওই দিন রাতে তাসফিয়াকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে নেন তার পরিবারের সদস্যরা। পরে মঙ্গলবার তাকে ওসিসিতে নেয়া হয়।

তাসফিয়ার মামা ফজলে রাব্বি জানান, ছোটখাটো বিষয় নিয়ে প্রায়ই নির্যাতন চলতো তাসফিয়ার উপর। তারা তার স্বামী সোহাগকে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন। এতে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে সোহাগের পরিবার। সোমবার তাকে পুরো পরিবার মিলে নির্দয়ভাবে পিটিয়েছে। এতে তার বাম পা ও ডান হাত ভেঙ্গে গেছে। বুকের পাঁজরেরও দুইটি হাড় ভেঙেছে। এছাড়াও মাথায় গুরুতর আঘাত থাকায় ১৭টি সেলাই পড়েছে।

Print
803 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close