মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করে যাচ্ছি

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্ক: দেশের উন্নয়নে দল-মত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সরকারকে সহযোগিতা করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা দেশকে স্বাধীনতা দিয়েছি। গণতন্ত্র দিয়েছি। জাতীয় সরকার গঠন করে দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় বর্তমান সরকারের ক্ষমতাগ্রহণের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ আশাবাদী মানুষের দেশ। আমরা ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করবো। আমরা আপনাদের (দেশবাসী) সর্বাত্মক সহযোগীতা চাই। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নে ঐতিহাসিক দিন সন্ধিক্ষণের ধারে। আসুন দল, মত, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে উন্নয়ন অব্যাহত রাখি। আমাদের প্রিয় মাতৃভূমিকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করি। মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের জাতি আমরা, কেউ আমাদের দাবায়ে রাখতে পারবে না। আমরা বিশ্ব সভার মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হবই। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়বোই ইনশাআল্লাহ্।

তিনি বলেন, দেশ যখন নানা সম্মানে ভূষিত হচ্ছে তখন বিএনপি-জামায়াত গণতন্ত্র রক্ষার নামে দেশ জুড়ে একাত্তরের মতো বর্বর হামলা চালিয়েছে। বিএনপি-জামায়াতের গণতন্ত্র ও উন্নয়ন সহ্য হয় না। সরকার ও জনগণের প্রতিরোধের ফলে ৯২ দিন পর বিএনপি নেত্রী নাকে খত দিয়ে বাড়ি ফিরে যান। স্বপ্নের পদ্মা সেতুর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, ২০১৮ সালের মধ্যে এই সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল করবে।

তিনি বলেন, যোগাযোগ খাতে আমরা ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। ঢাকায় এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে এবং মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ চলছে। প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নিজস্ব অর্থায়নে দেশের ইতিহাসের বৃহত্তম নির্মাণ প্রকল্প পদ্মাসেতুর কাজ চলছে। ২০১৮ সালের মধ্যে পদ্মাসেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল করবে।

ঢাকায় হাতিরঝিল প্রকল্প, কুড়িল-বিশ্বরোডে উড়াল সেতু, বনানী ওভারপাস, মেয়র হানিফ উড়াল সেতু, টঙ্গীতে, চট্টগ্রামে  উড়াল সেতু উদ্বোধন করা হয়েছে। মগবাজার-মালিবাগ উড়ালসেতুর নির্মাণ কাজ অচিরেই শেষ হবে। এছাড়া ঢাকা-ময়মনসিংহ এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম চার লেনের কাজ দ্রুতই উদ্বোধন করা হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর লক্ষ্যে দেশে ১০০ বিদ্যুৎ কেন্দ্র উদ্বোধন করতে পেরেছি। বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়ে এখন ১৪ হাজার ৭৭ মেগাওয়াট। ১২ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদন হচ্ছে। ২০১৫ সালে গ্যাস উৎপাদন গড়ে দৈনিক ২ হাজার ৭২৮ মিলিয়ন ঘনফুটে উন্নীত হয়েছে।

Print
746 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close