জয় দিয়ে বছর শুরু বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক:  দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপের মুখে পড়লেও শেষপর্যন্ত বছরের শুরুটা জয় দিয়েই করতে পেরেছে বাংলাদেশ। চার ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ সফরকারী জিম্বাবুয়েকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিকরা। ৮ বল বাকি থাকতেই ১৬৪ রানের লক্ষে পৌঁছায় বাংলাদেশ।

দলীয় ৩১ রানের মাথায় বাংলাদেশের প্রথম উইকেটের পতন হয়। ভুল বুঝাবুঝির শিকার হয়ে রান আউট হন সৌম্য সরকার। এরপর ৫৮ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৯ রানে ক্রেমারের বলে সিবান্দার হাতে ক্যাচ দেন তামিম ইকবাল। উদ্বোধনী জুটির বিদায়ের পর হাল ধরেন সাব্বির রহমান। ৩৬ বলে ৪৬ রান করে দলকে নিয়ে যান সুবিধাজনক অবস্থানে। ১১৮ রানের মাথায় তার বিদায়ে কিছুটা চাপে পড়ে স্বাগতিকরা।

এরপরও নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট পড়তে থাকে বাংলাদেশের। মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বিদায়ে স্বাগতিকদের স্কোর দাঁড়ায় ১৩৭/৬। তবে তখনো মাঠে সাকিব আল হাসান। তাই ১৬৪ রানের গন্তব্যে পৌঁছাতে বেশি বেগ পোহাতে হয়নি টাইগারদের। অভিষেক হওয়া নুরুল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে বাকি পথটুকু পাড়ি দেন তিনি।

এর আগে শুক্রবার খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে চার ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং করে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৬৩ রান করতে সক্ষম হয় জিম্বাবুয়ে। জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসের নিজের রেকর্ড স্পর্শ করেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

শতরানের উদ্বোধনী জুটির পর অবশ্য আরো বড় স্কোরের হাতছানি ছিল জিম্বাবুয়ের সামনে। কিন্তু শেষ দিকে বাংলাদেশের বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে কিছুটা ফিরে আসে বাংলাদেশ। শেষ ৪ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে মাত্র ২১ রান তুলতে পারে জিম্বাবুয়ে। শেষ দুই ওভারে জোড়া উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও আল আমিন হোসেন।

শেষে পথ হারানোর আগে জিম্বাবুয়েকে বড় স্কোরের পথে রেখেছিলেন মাসাকাদজা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই মাশরাফিকে তিনটি চার মেরে ইঙ্গিতটা দিয়েছিলেন তিনি। সময় যত গড়িয়েছে, ততই ছড়ি ঘুরিয়েছেন বাংলাদেশের বোলারদের ওপর। আরেক প্রান্তে দলে ফেরা ভুসি সিবান্দাও দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন মাসাকাদজাকে। দুজনে গড়েন রেকর্ড ১০১ রানের জুটি। জিম্বাবুয়ে হয়ে এটিই টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ওপেনিং জুটি। আগের সেরা ছিল গত অক্টোবরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চামু চিবাবা ও সিকান্দার রাজার ১০০। লং অনে সৌম্য সরকারের ক্যাচ মিসে ছক্কা হজম করার পরের বলেই সিবান্দাকে (৩৯ বলে ৪৬) ফিরিয়ে এই জুটি ভেঙেছেন সাকিব।

৪৪ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ক্যারিয়ারে এই প্রথম কিপিং করছেন না মুশফিকুর রহিম। তবে দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানের কাছে বড় রানের দাবি থাকবে দলের।

Print
1000 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close