জাতীয় সংসদ ভবন

এমপিদের বেতন-ভাতা দ্বিগুণ হচ্ছে

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্ক: জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও সংসদ সদস্যদের বেতন-ভাতা দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করে জাতীয় সংসদে আলাদা দুটি বিল উত্থাপন করা হয়েছে। দশম সংসদের নবম অধিবেশনে রোববার রাতে এ-সংক্রান্ত বিল দুটি উত্থাপন করেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়কমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। বিলে স্পিকারের মাসিক বেতন ৫৭ হাজার ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ ১২ হাজার টাকা, ডেপুটি স্পিকারের মাসিক বেতন ৫৩ হাজার ১০০ টাকা থেকে এক লাখ পাঁচ হাজার টাকা এবং সংসদ সদস্যদের মাসিক বেতন ২৭ হাজার ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫৫ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

‘স্পিকার অ্যান্ড ডেপুটি স্পিকার (রেমুনারেশন অ্যান্ড প্রিভিলেজ) অ্যাক্ট ১৯৭৪’ ও ‘মেম্বারস অব পার্লামেন্ট (রেমুনারেশন অ্যান্ড অ্যালাউন্সেস) অর্ডার ১৯৭৩’ শীর্ষক দুটি বিলে স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার এবং সংসদ সদস্যদের বেতন-ভাতা বাড়ানোর জন্য এ সংশোধনী প্রস্তাব আনা হয়েছে। বিল দুটি উত্থাপনের জন্য সংবিধানের ৮২ অনুচ্ছেদ অনুসারে রাষ্ট্রপতির সুপারিশ পাওয়া গেছে।

বিল দুটির উদ্দেশ্য ও কারণ-সংবলিত বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি, মূল্যস্ফীতি এবং দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার প্রেক্ষাপটসহ সরকারি কর্মচারীদের জন্য অষ্টম জাতীয় বেতন স্কেল ঘোষণা করার কারণে স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার এবং সংসদ সদস্যদের জন্য সময়োপযোগী বেতন-ভাতাদি নির্ধারণ করা আবশ্যক। এজন্য আইন দুটি সংশোধন করা প্রয়োজন বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

উপরোক্ত আইন বলেই বেতন, ভাতা, পারিতোষিক, বিশেষ অধিকার ইত্যাদি নির্ধারিত হয়ে থাকে। বিলে স্পিকারের মাসিক বেতন ৫৭ হাজার ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ ১২ হাজার টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে। স্পিকারের দৈনিক ভাতা এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে তিন হাজার টাকা, মাসিক ব্যয় নিয়ামক ভাতা আট হাজার থেকে বাড়িয়ে ১৩ হাজার টাকা, স্বেচ্ছাসেবী তহবিল দশ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১১ লাখ টাকা এবং বিমানযোগে ভ্রমণকালে বীমা কাভারেজ দশ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৬ লাখ টাকা করার করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

একই সঙ্গে বিলে ডেপুটি স্পিকারের মাসিক বেতন ৫৩ হাজার ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ পাঁচ হাজার টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে। দৈনিক ভাতা ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা, মাসিক ব্যয় নিয়ামক ভাতা ছয় হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে দশ হাজার টাকা, স্বেচ্ছাসেবী তহবিল আট লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে দশ লাখ টাকা এবং বিমানযোগে ভ্রমণকালে বীমা কাভারেজ পাঁচ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে আট লাখ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিলে সংসদ সদস্যদের বর্তমান মাসিক বেতন ২৭ হাজার ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫৫ হাজার টাকা, দৈনিক ভাতা ৩০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭৫৪ টাকা, মাসিক ব্যয় নিয়ামক ভাতা তিন হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা, স্বেচ্ছাসেবী তহবিল তিন লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে পাঁচ লাখ টাকা, মাসিক লন্ড্রি ভাতা এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে দেড় হাজার টাকা এবং ক্রোকারিজ ইত্যাদি মাসিক ভাতা চার হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ছয় হাজার টাকা, নির্বাচনী এলাকার মাসিক খরচ সাত হাজার ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১২ হাজার ৫০০ টাকা, মাসিক পরিবহন খরচ ৪০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭০ হাজার টাকা, বার্ষিক অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ খরচ ৭৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে এক লাখ ২০ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

পরে বিল দুটি পরীক্ষা করে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

সূত্র : দ্য রিপোর্ট

Print
917 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close