অস্বস্তিতে বাড়িওয়ালা : বিপাকে ব্যাচেলর

এক্সপ্রেস ডেস্ক: পুরান ঢাকার বাসিন্দা রেজওয়ান আলম (ছদ্মনাম)। পৈতৃকসূত্রে প্রাপ্ত তিন কাঠা জমির ওপর বছর ছয়েক আগে ছয়তলা ভবন নির্মাণ করে পুরোটাই মেস ভাড়া দিয়েছেন। ফ্যামিলির চেয়ে আয় বেশি হওয়ায় তিনি মেস ভাড়া দেন। কয়েক বছর ঝামেলামুক্ত থাকলেও সম্প্রতি মেসে জঙ্গিরা অবস্থান করছেন শুনে রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে রেজওয়ান বলেন, পুলিশের নির্দেশনা অনুসারে মেসে থাকা প্রত্যেকের বিস্তারিত তথ্য থানায় জমা দিলেও স্বস্তি পাচ্ছি না। গুলশান ও কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই কল্যাণপুরের মেসে মঙ্গলবার যৌথবাহিনীর অভিযানকালে ৯ জঙ্গির মৃত্যুর ঘটনার বিষয়টি খুব ভাবিয়ে তুলেছে তাকে।

তিনি বলেন, মেসের বাসিন্দাদের ওপর সারাক্ষণ নজর রাখা সম্ভব হয় না। ফলে কখন কোন মেস মেম্বারের বন্ধু ও আত্মীয় পরিচয়ে জঙ্গি আসবে আর কোনো অঘটন ঘটলে পুলিশ ধরে নিয়ে যাবে- এ নিয়ে ভীষণ ভাবনায় পড়েছি। তাই আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও মেস তুলে দেয়ার চিন্তাভাবনা করছেন তিনি।

শুধু রেজওয়ানই নন, তার মতো নগরীর বিভিন্ন এলাকার বহু বাড়িওয়ালাকেই এখন জঙ্গিভীতি তাড়া করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ায় অনেকেই ফ্ল্যাট ব্যাচেলরদের ভাড়া দিয়েছেন। অনেক বাড়িওয়ালা পুলিশের তথ্য দেয়ার তাগাদাকে উপেক্ষা করেছেন। এ ধরনের বাড়িওয়ালারা এখন চোখে-মুখে অন্ধকার দেখছেন। অনেক এলাকার বাড়িওয়ালা এখন বাড়ির কেয়ারটেকারের ওপর নির্ভর না করে রাত জেগে নিজে উপস্থিত থেকে তথ্য সংগ্রহ করে থানায় জমা দিচ্ছেন কিংবা সময় চেয়ে নিচ্ছেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) সূত্র জানায়, রাজধানীর আইন-শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে এবং সন্ত্রাসীসহ অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে বছরখানেক আগে নাগরিক তথ্যভাণ্ডার তৈরির লক্ষ্যে তথ্য সংগ্রহের কাজ শুরু করে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এ লক্ষ্যে ২০ লাখ ১৫ হাজার ৩৭৪টি ফরম বিতরণ করে রাজধানীর ৪৯ থানা পুলিশ। এর মধ্যে ১৮ লাখ ৪ হাজার ৩১৯ বাড়িওয়ালা ও ভাড়াটিয়ার তথ্য পুলিশের কাছে জমা পড়েছে। এ তথ্যভাণ্ডারে ঢাকায় স্থায়ী এবং অস্থায়ীভাবে বাস করা ভূমির মালিক (বাড়িওয়ালা) এবং ভূমি ব্যবহারকারী (ভাড়াটিয়া) উভয়ের তথ্য রয়েছে। যাতে সহজেই যে কোনো প্রয়োজনে পুলিশের তথ্য পেতে সমস্যা না হয়।

এদিকে জঙ্গি আতঙ্কে রাজধানীতে বসবাসকারী হাজার হাজার ব্যাচেলর তরুণ-তরুণী বিপাকে পড়েছেন। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে কলাবাগানের একটি মেসে থাকা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাইমুল ইসলাম বলেন, গত মাসে বাড়িওয়ালা মেস ছাড়ার নোটিশ দিয়েছেন। পড়াশোনার পাশাপাশি টিউশনি করে চাকরির সন্ধান করছেন জানিয়ে বলেন, জঙ্গি হামলার কারণে তার মতো বহু তরুণের ঢাকা শহরে বসবাস করা নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে।

Print
894 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close