ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯ ছাত্র নজরদারিতে

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্ক:  হিজবুত তাহরীরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ২৯ জন শিক্ষার্থীর বিস্তারিত তথ্য খুঁজছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তাদের নজরদারিতে রাখা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের ২৯ জন ছাত্রের বিরুদ্ধে হিজবুত তাহরীরের রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। তাদের মধ্যে মার্কেটিং বিভাগের ১১ জন, ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ইনফরমেশন বিভাগের আটজন, ফাইন্যান্স বিভাগে চারজন, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন বিভাগের চারজন এবং ম্যানেজমেন্ট বিভাগের দুজন ছাত্র রয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ এম আমজাদ বলেন, ছয়-সাত মাস আগে সোলাইমান নামের হিজবুত তাহরীরের এক সদস্যকে মুহসীন হল থেকে আটক করা হয়। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্ট্যাডিজ অনুষদের ছাত্র ছিলেন। পরে তাঁর কাছ থেকে হিজবুত তাহরীরের বেশকিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়। এতে ওই অনুষদের ২৯ জনের একটি তালিকা ছিল। তালিকার সবার বিভিন্ন কাজের রুটিনও পাওয়া গেছে। পরে সোলাইমানকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়। তালিকা পাওয়ার পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই ২৯ জনের তথ্য খুঁজছে।

এদিকে, গত রোববার রাতে সিন্ডিকেট সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পৃথকভাবে অন্তত ১৪টিরও বেশি অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এর মধ্যে যৌন হয়রানি, ধর্ষণের হুমকি দিয়ে চাঁদাবাজি, শিক্ষককে ধাক্কা মারা ও রুম ভাঙচুর, নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের সঙ্গে জড়িত থাকার মতো অভিযোগ রয়েছে। এ সময় আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের জার্মান ভাষা বিভাগের শিক্ষক আশরাফ উজ জামান সরকারকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। তিনি অনুমতি না নিয়ে জার্মান দূতাবাসে চাকরি নিয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া এক ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িত থাকার অভিযোগে ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষক আবু মূসা মো. আরিফ বিল্লাহর দুই বছরের ইনক্রিমেন্ট বন্ধ এবং এক বছর কোনো ধরনের ইনক্রিমেন্ট না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Print
1090 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close