দুই হাজার ভিক্ষুক পুনর্বাসনের জন্য সনাক্ত

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্কঢাকা মহানগরীকে ভিক্ষুকমুক্ত করার লক্ষ্যে মহানগরীর ১০টি জোনে ১০ হাজার ভিক্ষুকের ওপর জরিপ কাজ পরিচালনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন। তিনি বলেছেন, জরিপ অনুযায়ী দুই হাজার জনকে পুনর্বাসনের জন্য সনাক্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য এম. আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহরের বিমানবন্দর, হোটেল সোনারগাঁও, হোটেল রূপসী বাংলা, হোটেল রেডিসন, বেইলি রোড, কূটনৈতিক জোন ও দূতাবাস এলাকাসমূহকে প্রাথমিকভাবে ভিক্ষাবৃত্তিমুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। ভিক্ষুকমুক্ত হিসেবে ঘোষিত এ সকল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে। প্রমোদ মানকিন বলেন, ঢাকা শহরকে ভিক্ষুকমুক্ত করার লক্ষ্যে ‘ভিক্ষাবৃত্তিতে নিয়োজিত জনগোষ্ঠী পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান’ শীর্ষক কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে। এ কর্মসূচির আওতায় পাইলটিং হিসেবে ময়মনসিংহ জেলায় ৩৭ জন ও জামালপুর জেলায় ২৯ জনকে রিকশা, ভ্যান ও ক্ষুদ্র ব্যবসার পুঁজি প্রদানের মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হয়েছে। পরবর্তীতে পাইলটিংয়ের ফলাফলের ভিত্তিতে কর্মসূচির বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন আনা হয়েছে।

Print
1260 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close