‘ধর্মত্যাগী’ কবিকে প্রাণভিক্ষা দিল সৌদি

যশোর এক্সপ্রেস ডেস্ক: সৌদি আরবে ধর্মত্যাগের অভিযোগে ফিলিস্তিনি কবি আশরাফ ফায়াদকে দেয়া মৃত্যুদণ্ডের বিধান পরিবর্তন করেছে দেশটি। তবে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ বহাল রেখেছে সৌদি আরব। আশরাফ ফায়েদের আইনজীবী জানান, মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে ফায়াদকে আট বছরের কারাদণ্ড ও ৮০০ বেত্রাঘাতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গত বছরের নভেম্বরে সৌদি আরবের দক্ষিণ-পশ্চিঞ্চলীয় শহর আবহার একটি আদালত ‘ব্লাসফেমি’ (ঈশ্বরনিন্দা) আইনে ফায়াদকে মৃত্যুদণ্ড দেয়। তখন থেকে বিষয়টির নিন্দা জানিয়ে আসছিল আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।

ফায়াদের আইনজীবী আবদুর রহমান আল-লাহিম গণমাধ্যমতে বলেন, ফায়াদকে মোট ১৬ দফায় ৮০০টি বেত্রাঘাত করা হবে এবং ৮ বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। সেই সাথে গণমাধ্যমে প্রকাশ্যে নিজের ভুলের জন্য অনুশোচনা প্রকাশ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, ফায়াদ নির্দোষ এবং তার মুক্তি দাবি করে এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবে আসামিপক্ষ। প্রাথমিকভাবে ফায়াদের বিরুদ্ধে মোহাম্মদ (স.)কে অপমান, কোরানের প্রতি বিদ্রুপ এবং নাস্তিক্যবাদ প্রসারের অভিযোগ এনে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল। এরপর সৌদি বাদশা সালমানের কাছে ভাইয়ের প্রাণভিক্ষার জন্য আবেদন করেন ফায়াদের বোন রায়েদা ফায়াদ। ফায়াদের দণ্ডের রায় পরিবর্তনের ঘটনা এটাই প্রথম নয়। এর আগেও অবৈধ যৌন সম্পর্কের অভিযোগে তাকে চার বছরের কারাদণ্ড এবং ৮০০ বেত্রাঘাতের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। মৃত্যুদণ্ড চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীদের আবেদন তখন খারিজ করে দেয় আদালত। যদিও সৌদি আরবে এই অপরাধের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

Print
1306 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close