যশোরে ইজিবাইক চালককে ছুরিকাঘাতে হত্যা

যশোরে রুবেল নামে এক ইজিবাইক চালককে (২৫) ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। সে চাঁচড়া রায়পাড়ার ইসমাইল কোলোনীর ইউনুস আলীর ছেলে। ৭ ফেব্রুয়ারি সকালে যশোরের বারান্দিপাড়া বাবলাতলা ব্রিজের নিচ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের বন্ধু গোছের দু’জনকে ছোরাসহ আটক করেছে পুলিশ। তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবদে হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। আটকৃকতরা হচ্ছে চাঁচড়া রায়পাড়ার বাবু  তরফদারের ছেলে লাভলু তরফদার  ও জিয়াউর রহমান জিয়ার ছেলে  নয়ন মাহমুদ।
৭ ফেব্রুয়ারি সকালে শেখহাটি ও বারান্দিপাড়ার লোকজন ব্রিজে নিচে এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে সেখানে একে একে আরও লোকজন জড়ো হয়। এরপর পুলিশে খবর দিলে থানার এসআই শাহাবুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং লাশ উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। লাশটি অজ্ঞাত হিসেবে উদ্ধার হলে পুলিশ লাশ সনাক্ত করার চেষ্টা করে। ওই দিন বিকেল পর্যন্ত পুলিশ ওই লাশের কোন স্বজন পায়নি। বিভিন্ন মহলে চাউর হতে থাকে হতভাগ্য যুবকটি কে। এক পর্যায়ে এদিন সন্ধ্যায় পুলিশ নিহত রুবেলের স্বজনদের পায়। তারা লাশ সনাক্ত করে। এছাড়া একই পাড়ার কয়েক যুবককে সন্দেহ করে পুলিশকে  জানায়। এরপর থানার এসআই শিহাবুর রহমান অভিযান চালিয়ে আটক করেন লাভলু ও নয়নকে। তারা নিহত রুবেলের বন্ধু গোছের ছিল সম্প্রতি তাদের সাখে গোলযোগ বাঁধে। ৬ ফেব্রয়ারি রাতে বাড়ি না ফেরায় ৭ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে খোজাখুঁজি শুরু হয় পরিবারের পক্ষে। লাশ সনাক্ত করে পরিবারে লোকজন তথ্য দিলে ছোরাসহ আট হয় ওই লাভলু ও নয়ন। তারা পুলিশের কাছে হত্যার কথা স্বীকার করেছে বলে তথ্য মিলেছে।  এব্যাপারে রুবেলের পরিবারের পক্ষে মামলার প্রস্তুতি চলছিল এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত।
Print
1118 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close