নারায়ণগঞ্জে চাঁদাবাজির অভিযোগে ৪ সহযোগীসহ র‌্যাব সদস্য আটক

এক্সপ্রেস ডেস্ক: চাঁদাবাজির অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার আষাড়িয়ার চর থেকে র‌্যাবের এক সদস্যসহ পাচঁজনকে আটক করেছে র‌্যাব- ১১ এর সদস্যরা। শনিবার দুপুরে তাদের আটক করা হয়। র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক আনোয়ার লতিফ খান জানান, সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ ও আশপাশের এলাকায় চাঁদাবাজির ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। এমনকি বিভিন্ন স্থানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নামেও অনেক চাঁদাবাজির ঘটনায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে। র‌্যাবের গোয়েন্দা দল এসব চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে সোচ্ছার ছিল। আজ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার আষাড়িয়ার চর থেকে র‌্যাবের এক সদস্যসহ পাচঁজনকে আটক করেছে। চর গ্রামের মহসিন প্রধান নামে এক কবিরাজের কাছ থেকে এক লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে র‌্যাব-১৩ (রংপুর) এর কর্মরত মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার আনারপুরা গ্রামের আব্দুল বাতেনের ছেলে কনস্টেবল হুমায়ূন কবিরকে (৩৫) এবং তার চার সহযোগী একই উপজেলার জামলাদী গ্রামের সিরাজ মিয়ার স্ত্রী শাহিদা আক্তার (৪৫), একই উপজেলার বাতের চর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আমজাদ হোসেন (৩২) রংপুরের কোতয়ালী থানার জানখী দাপেরহাট গ্রামের মাহবুব ইসলাম (৩০) ও একই জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের শুক্কুর মিয়ার ছেলে মো. হাসানুজ্জামানকে (২৪) আটক করে প্রথমে আদমজী নগরে র‌্যাব-১১ এর সদর দফতরে নেয়া হয়।

তিনি আরো জানান, গত পাচঁ মাস পূর্বে উপজেলার আষাড়িয়ার চর এলাকার মহসিন মিয়ার কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে র‌্যাবের ভয়ভীতি দেখিয়ে র‌্যাব সদস্য হুমায়ুন কবির সাড়ে তিন লাখ টাকা আদায় করেছেন। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল এক লাখ টাকা চাঁদা লেনদেন করার সময় র‌্যাব সদস্য হুমায়ুন কবির ও তার চার সহযোগীকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের ব্যবহৃত মাইক্রো বাসটিও (ঢাকা মেট্টো-চ-৫৪-১২৯৩) আটক করা হয়। কবিরাজ মহসিন প্রধান জানান, আমাকে বিভিন্ন সময়ে র‌্যাবের ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা আদায় করে। গতকাল এক লাখ টাকা চাঁদা নেয়ার সময় আমি র‌্যাব-১১ সদস্যদের বিষয়টি অবহিত করার পর চাঁদাবাজদের হাতেনাতে আটক করে। থানা হাজতে আটক শাহিদা আক্তার জানান, কয়েক বছর পূর্বে তার মেয়ে শিল্পী আক্তারকে কবিরাজ মহসিন প্রধানের কাছে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই ভ- কবিরাজ মহসিন প্রধান আমার মেয়েকে যৌতুকের জন্য বিভিন্ন সময় অমানুষিক নির্যাতন চালাতো। এ বিষয়ে মিমাংসার জন্য আমার ভাই র‌্যাব সদস্য হুমায়ুন কবিরসহ বন্ধুদের নিয়ে কবিরাজ মহসিনের বাসায় বসে আলোচনার একপর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়। কিছুক্ষন পর র‌্যাব সদস্যরা আমাদের চাঁদাবাজির মিথ্যা অভিযোগে আটক করে। আমরা সম্পূর্ণভাবে ষড়যন্ত্রের স্বীকার। সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, চাঁদাবাজির অভিযোগে র‌্যাব সদস্যরা আমাদের কাছে এক র‌্যাব সদস্যসহ পাঁচজনকে হস্তান্তর করেছে। এ বিষয়ে (সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা) থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Print
1343 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close