কালীগঞ্জ পৌরসভায় আ’লীগের প্রার্থী ৫, বিএনপির ৩

এক্সপ্রেস ডেস্ক: ২০ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন। ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন তফশিল ঘোষণা করেছে। নির্বাচনকে ঘিরে সম্ভাব্য প্রার্থীরা রাত-দিন ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন দোয়া ও ভোট প্রার্থনায়। আওয়ামী লীগের ৫ প্রার্থী জোরে শোরে প্রচারণায় রয়েছে। নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষ ও বিএনপির দুটি পক্ষ আলাদা প্রার্থী নিয়ে প্রচারণা করছে। পৌরসভার বর্তমান মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বিজু অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলায় জেলে থাকলেও তার পক্ষে নেতাকর্মীরা প্রচারণা করছে। তবে বিএনপির প্রার্থী কে তা নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় রয়েছে নেতাকর্মীরা। তার পরেও দু’পক্ষের ৩ প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা করছেন। বিএনপির নেতারা জানিয়েছেন কেন্দ্র থেকে যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষেই নেতাকর্মীরা কাজ করবেন।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, কালীগঞ্জে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপে বিভক্ত। একটির নেতৃত্ব দেন সাবেক এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান। অপরটির নেতৃত্ব দেন আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল আজীম আনার। পৌর নির্বাচনে আব্দুল মান্নান গ্রুপের একজন প্রার্থী রয়েছেন তিনি বর্তমান মেয়র ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বিজু। এছাড়াও আনোয়ারুল আজীম আনার গ্রুপের তিনজন প্রার্থী জোর প্রচারণায় রয়েছে। এর মধ্যে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: মকছেদ আলী, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম আশরাফ, সাবেক ছাত্রলীগের উপজেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সোহেল।

এছাড়াও প্রার্থী হিসেবে নিজেকে ঘোষণা করেছেন পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মন্টু। কালীগঞ্জে বিএনপির ২টি গ্রুপে বিভক্ত। একটি গ্রুপে নেতৃত্ব দেন সাবেক সংসদ সদস্য এম শহিদুজ্জামান বেল্টু অপরটিতে সাবেক পৌর মেয়র মাহাবুবুর রহমান ও বিএনপির উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক হামিদুল ইসলাম হামিদ। বিএনপির বেল্টু গ্রুপে পৌর বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান এবং যুবদল নেতা ও ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন এবং বিএনপির পৌর সাধারণ সম্পাদক আশরাফুজ্জামান প্রচারণা  চালাচ্ছেন। জামায়াত ও জাতীয় পার্টির কোন প্রার্থী প্রচারণায় দেখা যায়নি। কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: মকছেদ আলী জানান, তিনি নিজে সম্ভাব্য পৌর মেয়র প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তার সঙ্গে আরো কয়েকজন প্রার্থী মাঠে আছেন। তিনি আশা করছেন দলীয়ভাবে তাকেই নৌকা প্রর্তীকে মনোনয়ন দিবেন।

বিএনপির সাবেক এমপি শহিদুজ্জামান বেল্টু গ্রুপের কালীগঞ্জ পৌর বিএনপির সভাপতি আতিয়ার রহমান জানান, তারা এখনো নির্ধারণ করতে পারেনি আগামী পৌর নির্বাচনে তাদের দল থেকে কে প্রার্থী হবেন। তবে তিনিসহ আরো দুজন প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণা করছেন। দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষেই তারা কাজ করবেন। বিএনপির অপর গ্রুপের উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক হামিদুল ইসলাম হামিদ জানান, বিএনপির কোন প্রার্থী নির্ধারণ করা হয়নি। দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে প্রার্থী ঘোষণা করা হবে। তিনি আরো জানান, ক্ষমতাসীনদের হামলা-মামলার কারনে কোন সম্ভাব্য প্রার্থী মাঠে নামতে পারছেন না। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার  জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, নির্বাচন কমিশনের তফশিল অনুযায়ী ২২ ফেব্রুয়ারি রিটার্নিং অফিসারের নিকট মনোনয়নপত্র দাখিল, ২৪-২৫ ফেব্রুয়ারি মনোনয়ন বাছাই, ৪ মার্চ প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ও ভোট গ্রহণ হবে আগামী ২০ মার্চ। প্রসঙ্গত, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ পৌরসভা ১৯৯০ সালের ১৪ মার্চ প্রতিষ্ঠিত হয়। আয়তন ১৫.৮৩ বর্গ কিলোমিটার। মোট ভোটার ৩০৭৩৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১৫৪৪৬ জন ও মহিলা ১৫৩২২ জন। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে পৌরসভাটি গঠিত। পৌরসভায় এ পর্যন্ত চারবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম বার ও দ্বিতীয়বার পৌর চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন আব্দুল মান্নান, তৃতীয়বার বিএনপি সমর্থিত মাহবুবার রহমান, চতুর্থবার আওয়ামী লীগ সমর্থিত মোস্তাফিজুর রহমান বিজু।

Print
984 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close