বেনাপোলে কাস্টমস কর্মকর্তা উপর হামলাকারীদের বাড়িতে তল্লাশি ও ভাংচুর

এক্সপ্রেস ডেস্ক: অপরদিকে এ ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের পরিবারের অভিযোগ বুধবার রাতে যৌথ বাহিনীর একটি দল শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আকুল হুসাইন, নিলাম ক্রেতা মোহাম্মদ আলী, রহিম ও আজিবরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও তছনছ করেছে। এসব বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে বাড়ির আসবাসপত্রসহ বাথরুমের সরজ্ঞাম ভাংচুর অবস্থায় পড়ে আছে। আজিজবেরর স্ত্রী বুলবুলি জানান, গভীর রাতে একদল পুলিশসহ অন্যান্য বাহিনীর লোকজন এসে দরজা খুলতে বলে। দরজা খোলার সাথে সাথে তারা তার স্বামী আজিবরকে খুজতে থাকে। এ সময় তাকে না পেয়ে বাড়ির মধ্যে ভাংচুর চালিয়ে চলে যায়। একটি খাট ছাড়া বাড়ির আর কোন জিনিস অক্ষত নেই। একই কথা জানান, অপর আসামী মোহাম্মদ আলীর খালা মরিয়ম খাতুন, আকুলের ছোট বোন সনিয়া খাতুন। তাদের দাবি অন্যায় করলে তার বিচার আছে কিন্তুু এ ভাবে বাড়িতে ঢুকে জিনিসপত্র ভাংচুরের ঘটনা সভ্য সমাজে মেনে নেওয়া যায় না।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অপুর্ব হাসান জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। থানায় মামলা করার পর পরই পুলিশ আসামীদের আটকে সাড়াশি অভিযান চালাচ্ছে। বুধবার রাতে আসামীদের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। কাউকে আটক করা যায়নি। অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আসামীদের বাড়িতে ভাংচুরের ঘটনায় ব্যাপারে তিনি বলেন, নিজেদের বাড়ির আসবাসপত্র ভাংচুর করে পুলিশের উপর দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে। উল্লেখ্য অবৈধ নিলাম সুবিধা না দেওয়ায় বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কাস্টমস হাউজের মধ্যে স্থানীয় ছাত্রলীগের একদল সন্ত্রাসী বেনাপোল কাস্টমস হাউসের যুগ্ম-কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও উপকমিশনার নিতিশ চন্দ্র বিশ্বাসের উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় ৬ জনের নাম উল্লেখসহ আরো ২০/৩০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে পোর্ট থানায় মামলা করা হয়।

Print
1203 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close