মায়ের মৃত্যু নিয়ে কথা না বলার জন্য দুঃখ প্রকাশ প্রিন্স হ্যারির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌন্দর্য আর মানবিক কর্মকাণ্ডের জন্য দুনিয়াজুড়ে পরিচিত ছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা। ১৯৯৭ সালের ৩১ আগস্ট ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে রহস্যময় এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন ব্রিটিশ রাজপরিবারের এ সদস্য। ডায়ানার মৃত্যুর সময় তার পুত্র হ্যারি ছিলেন ১৩ বছরের কিশোর। সম্প্রতি মায়ের মৃত্যুর পর ওই বেদনদায়ক ঘটনা নিয়ে কথা না বলার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রিন্স হ্যারি। হেডস টুগেদার নামে একটি মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক দাতব্য প্রতিষ্ঠানের এক অনুষ্ঠানে তিনি এ দুঃখপ্রকাশ করেন। প্রিন্স হ্যারি বলেন, যে কেউ মানসিক অসুস্থতায় ভুগতে পারেন। এই অনুষ্ঠানটি তা নিয়ে আলোকপাত করার একটি সুযোগ। এই অনুষ্ঠানটি এটা দেখানোর একটা সুযোগ যে, ক্রীড়া তারকা এমনকি এমনকি রাজপরিবারের সদস্যরাও অন্য সবার মতো মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগতে পারেন। ওই অনুষ্ঠানে বেশ কয়েকজন ক্রীড়াতারকাও অংশগ্রহণ করেন। এদের মধ্যে ছিলেন ফুটবলার রিও ফার্দিনান্দ, অ্যাথলেট ডেম কেলি হোমস ও আইওয়ান থমাস এবং সাইক্লিস্ট ভিক্টোরিয়া পেন্ডলটন। এদের মধ্যে কেউ কেউ কীভাবে বিষন্নতাকে মোকাবেলা করেছেন, সেই বিষয়ে কথা বলেন। প্রিন্স হ্যারি তার মার মৃত্যু নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে ফার্দিনান্দকে বলেন, ‘তুমি জানো, এটা নিয়ে কথা না বলার জন্য আমি সত্যিই দুঃখপ্রকাশ করি।’ উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালে এক গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রিন্সেস ডায়না মারা যান। সেই সময় প্রিন্স হ্যারির বয়স ছিল মাত্র ১২। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি।

Print
753 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close