চার্জশিটের নারাজি আবেদন খারিজ, পরোয়ানা জারি

এক্সপ্রেস ডেস্ক: যশোর সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন হত্যা মামলায় চার্জশিটের ওপর করা বাদীর নারাজি আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। এ আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মৃত্যুঞ্জয় মিস্ত্রী চার্জশিট গ্রহণ করেন। এরপর পলাতক আসামিদের আটকের জন্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। ২০১৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর মামলার বাদী নিহতের ভাই আলতাফ বিশ্বাস জড়িত আসামিদের নাম চার্জশিটে না আসায় আদালতে না রাজি আবেদন করেছিলেন। উল্লেখ্য, যশোর সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন ২০১৪ সালের ২৫ মে সন্ধ্যার পর স্থানীয় রাজারহাটের একটি চামড়ার আড়তে দলীয় লোকজনের সাথে কথাবার্তা বলছিলেন। এসময় দুর্বৃত্তরা তার ওপর গুলি ও বোমা হামলা চালায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৮ জুন মারা যান তিনি।

বোমা হামলার পর আলমগীরের ভাই আলতাফ বিশ্বাস বাদী হয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে ২৯ জনের নাম উল্লেখসহ অপরিচিত ১০/১২ জনকে আসামি করে মামলা করেন। তিনি মারা গেলে মামলাটি হত্যা মামলায় রূপ নেয়। আটক আসামিদের জবানবন্দি ও স্বাক্ষীদের বক্তব্যে হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় গত ৩০ জুলাই ৪০ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন ডিবি পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আবুল খায়ের মোল্লা। কিন্তু মামলার বাদী নিহতের ভাই আলতাফ বিশ্বাস আদালতে চার্জশিটের ওপর নারাজি আবেদন করেন। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, চার্জশিটে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিহত আলমগীরের দেয়া জবানবন্দিতে উল্লিখিত অনেক আসামিকে আটক ও জিজ্ঞাসাবাদ করেননি। এমনকি এক আসামির দেয়া আদালতের জবানবন্দিতে আলাউদ্দিন মুকুলের নাম এলেও তাকে চার্জশিটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। তিনি এ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত সকল আসামিকে পুনঃতদন্তের মাধ্যমের অন্তর্ভুক্তির দাবিতে আদালতে এ নারাজি আবেদন করেছেন। বুধবার ধার্য দিনে এ মামলার চার্জশিটের ওপর নারাজি আবেদনের শুনানি শেষে বিচারক বাদীর নারাজি আবেদন খারিজ করে চার্জশিট গ্রহণ করে পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দিয়েছেন।

Print
788 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Close