কর্মজীবী শিশুদের দুই তৃতীয়াংশই বিদ্যালয়ে যায় না

এক্সপ্রেস ডেস্ক: কর্মজীবী শিশুদের দুই তৃতীয়াংশ বিদ্যালয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় না। আগে বিদ্যালয়ে গেলেও এখন যায় না এমন শিশুর সংখ্যা ২১ লাখ। পূর্বের এক সমীক্ষায় দেখা যায় পরিসংখ্যান ব্যুরো ২০০২-২০০৩ অনুসারে শিশু শ্রমের সংখ্যা ছিল ৭.৯ মিলিয়ন, যেখানে ৫ থেকে ১৭ বৎসর বয়সির শিশু শ্রমিক। রবিবার শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে  (ডিআরইউ) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম বিএসএএফ, এসইইপি, উদ্দীপনসহ বিভিন্ন সংগঠনের আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উদ্দীপনের নির্বাহী পরিচালক ইমরানুল হক চৌধুরী, শিশু অধিকার ফোরামের ডিরেক্টর শহিদ মাহমুদ প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা শিশুশ্রম বিষয়ক বিদ্যামান আইনের সঠিক বাস্তবায়ন ও শিশুশ্রম বিষয়ক আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নজরদারী বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ পরিংসখ্যান ব্যুরোর সাম্প্রতিক সমীক্ষায় দেশে শিশুশ্রম ও শিশু শ্রমিককের যে চিত্র উঠে এসেছে তা খুবই উদ্বেগজনক। পরিসংখ্যন অনুযায়ী দেশের ৩৪ লাখ কর্মজীবী শিশু রয়েছে। যার মধ্যে ২৯ লাখ ৪৮ হাজার পূর্ণকালীন ও ৫ লাখ ২ হাজার খন্ডকালীন কাজ করে। অ্যান্ডিং চাইল্ড লেবার ইন বাংলাদেশ বিষয়ে বক্তারা বলেন, এটি শিশুশ্রম নিরসন বিষয়ক একটি সামগ্রিক কর্মসূচি। চাহিদা ভিত্তিক এবং অধিকার ভিত্তিক উভয় অ্যাপ্রোচের মাধ্যমে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। তারা আরো বলেন, বাংলাদেশে শিশু শ্রমিকরা অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করে। তারা মানবমূল্য, মানব মর্যাদা, মানব সুখ কোনো কিছুই অধিকার ভোগ করতে পারে না। দরিদ্রতাই শিশু শ্রমের কারণ।

Print
642 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close