ঝিকরগাছায় এএসআই তৌহিদুলকে ছুরিকাঘাত, অস্ত্র খোয়া!

এক্সপ্রেস ডেস্ক:  ঝিকরগাছায় সন্ত্রাসীদের ছুরির আঘাতে এএসআই তৌহিদুল ইসলাম (৪৫) গুরুতর জখম হয়েছেন। সোমবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে ঝিকরগাছা শহরের অদূরে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় দুর্বৃত্তরা ওই পুলিশ কর্মকর্তার অস্ত্র, ম্যাগজিন ও মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায় বলে তিনি জানালেও থানার ওসি তা অস্বীকার করেছেন। সহকারী পুলিশ সুপার (ক সার্কেল) ভাস্কর সাহাও অস্ত্র বা অন্য কিছু খোয়া যাওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন। খবর পেয়ে ঝিকরগাছা থানার ওসি ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় এএসআই তৌহিদুলকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক কাজল মল্লিক রাত সোয়া তিনটার দিকে জানান, পুলিশ তাকে জানিয়েছে, সন্ত্রাসীরা তৌহিদুলের পেটে ছুরি মেরেছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। ‘অন্তঃবিভাগের চিকিৎসক ওহেদুজ্জামান আজাদকে কল দেওয়া হয়েছে। তিনি এসে রোগীকে ব্যবস্থাপত্র দেবেন’, বলেন ডা. মল্লিক। ওয়ার্ডে কর্তব্যরত সেবিকা হাসিনা আক্তারকে আহত তৌহিদুল জানিয়েছেন, রাতে তিনি যশোর-বেনাপোল সড়কে মোবাইল টিম নিয়ে ডিউটিতে ছিলেন। হঠাৎ ৭-৮জনের একটি সন্ত্রাসী দল পেছন থেকে তার মাথায় রড দিয়ে বাড়ি মারে। এরপর তার অস্ত্র মোটরসাইকেল নিতে গেলে তিনি বাধা দেন। তখন সন্ত্রাসীরা তাকে ছুরিকাঘাত করে তার ম্যাগজিনসহ পিস্তল, নগদ টাকা এবং মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকালে ঝিকরগাছা থানা ওসি মোল্যা খবির আহমেদকে মোবাইলফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এখন কোনো কথা বলতে পারছি না, পরে ফোন দেন।’ বেলা পৌনে একটায় ওসি ঘটনা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘পুলিশের টহল দল ওই সময় রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় একদল দুর্বৃত্ত রাস্তায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পুলিশ ধাওয়া করে এক ডাকাতকে ধরে ফেলে। এ সময় সেই ডাকাত এএসআই তৌহিদুলকে ছুরি মেরে পালিয়ে যায়।’

Print
1407 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close