মণিরামপুরের সেই বটগাছটি বিক্রির সিদ্ধান্ত

এক্সপ্রেস ডেস্ক: যশোরের মণিরামপুরে প্রায় দেড়শ’ বছরের পুরনো এবং সাম্প্রতিক কালবৈশাখি ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বটগাছটি অবশেষে কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। এটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে প্রায় ৭৫ হাজার টাকা। মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে হেলে পড়া বটগাছটি সরেজমিনে পরিদর্শন করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মণিরামপুর উপজেলার হেলাঞ্চি বাজারে দেড়শ’ বছরের পুরাতন একটি বটগাছ রয়েছে। যেটি যুগ যুগ ধরে গ্রাম বাংলার পুরাতন ঐতিহ্যকে লালন করে আসছিলো। চলতি বছরের ৪ মে সন্ধ্যায় মণিরামপুরের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে গাছটি গোড়া থেকে প্রায় ৫ ফুট উচ্চতায় ফেটে হেলে পড়ে। ফলে গাছটি এলাকাবাসীর জন্য হুমকি হয়ে দাড়ায়। বাজারের ব্যবসায়ী ও পথচারীদের কথা বিবেচনা করে গাছটি কাটার জন্য ওই মাসের ২৪ তারিখে স্থানীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল আলীম জিন্নাহসহ ১৩৬ জন স্বাক্ষরিত একটি আবেদনপত্র জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জমা পড়ে। এলাকাবাসীর আবেদনের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসানকে আহবায়ক করে ৫ সদস্যের একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়। তদন্ত টিম মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে সরেজমিনে বটগাছটি পরিদর্শন করে। তারা এটি জনগণের জন্য হুমকি হিসাবে মনে করে তা কাটার সিদ্ধান্ত নেন। এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরদার মুজিবর রহমান, খেদাপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি ইকবাল হোসেনসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান জানান, তদন্ত টিমের সদস্যদের নিয়ে সরেজমিন দেখা গেছে বটগাছটি এখন জনসাধারণের জন্য হুমকি হয়ে দাড়িয়েছে। তাই গাছটি কাটার জন্য জেলা প্রশাসক স্যারের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। বটগাছটির মূল্য ৭৪ হাজার ৮৪৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান ইউএনও।

Print
1110 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close