এএসআই ছুরিকাঘাতের জের, বস্তিতে পুলিশি তাণ্ডবের অভিযাগ

এক্সপ্রেস ডেস্ক: যশোরের ঝিকরগাছা থানার এএসআই ছুরিকাঘাতের জের ধরে ঘটনাস্থল ওয়াপদা পল্লীতে তাণ্ডব চালিয়েছে পুলিশ। সোমবার মধ্যরাতে ডাকাতের ছুরিকাঘাতে এএসআই তৌহিদুর রহমান জখম হওয়ার পরপরই পুলিশ ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। এসময় থানার ওসি মোল্লা খবির আহম্মদ পল্লীর ৩০ পরিবারকে ২৪ ঘণ্টার ভেতরে এলাকাছাড়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সোমবার গভীররাতে ওয়াপদা রোডের লিটন ড্রাইভারের ভাড়াবাড়িতে ৭/৮ জন মুখোশধারী ডাকাত বারান্দার গ্রিল কেটে ঘরে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতি করার সময় টহল পুলিশ সেখানে হানা দেয়।

এসময় থানার এএসআই তৌহিদুল ইসলাম ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে জখম হন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝিকরগাছা থানা পুলিশ ওই রাতেই ওয়াপদা পল্লীতে (বস্তি) তাণ্ডব চালায়। পুলিশ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ডেকে এনে তাদেরকে সাথে নিয়ে হামলার পর লুটপাট করে। মঙ্গলবার বিকেলে সরজমিনে দেখা গেছে, ওয়াপদা পল্লীর ভূমিহীন বাসিন্দারা অসহায় হয়ে পড়েছেন। রাতে তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে ক্ষ্যান্ত হয়নি পুলিশ। নিয়ে গেছে ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন ও নগদ টাকাও। সাথে আগামী ২৪ ঘণ্টার ভেতরে জায়গা ছাড়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন থানার ওসি মোল্লা খবির আহম্মদ।
এই পল্লীর সায়রা খাতুন জানান, রাতে ছেলে আনার উদ্দিন ও নাতি সাইদুর রহমান ঘুমিয়ে ছিল। এমন সময় একদল পুলিশ এসে তাদেরকে আটক করে নিয়ে যায় এবং বাড়িঘর ভাঙচুর করে। তারা উভয়ই মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন। আরেক নারী তাসলিমা খাতুন জানান, পুলিশ ও সাদা পোশাকধারী কিছু লোক মিলে তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। বাড়িঘর ভাঙচুরে বাধা দেয়ায় বৃদ্ধা হামিদা বেগমসহ কয়েকজন পুলিশের পিটুনিতে আহত হয়েছেন। পুলিশ ওই রাতে ঘুমিয়ে থাকা নিরাপরাধ ৬ জনকে আটক করে নিয়ে যায়। অবশ্য, ঝিকরগাছা থানার ওসি মোল্লা খবির আহম্মদ জানিয়েছেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদেরকে আটক করা হয়েছে।
ওই পল্লীর বাসিন্দারা জানান, ৩০/৩৫ বছর ধরে তারা এই ওয়াপদা পল্লীতে খুঁপরি ঘরে বসবাস করছেন। তারা সবাই ভূমিহীন। তাদের উচ্ছেদের ব্যাপারে ওয়াপদা কখনও কোনো নোটিশ বা মৌখিক নির্দেশ দেয়নি। অথচ পুলিশ তাদের উপর নির্যাতন করেছে ও উচ্ছেদের নির্দেশ দিয়েছে। তবে ঝিকরগাছা থানার ওসি জানান, সরকারি জমিতে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ওই বস্তিকে ঘিরে দুর্ধর্ষ একটি অপরাধী চক্র দীর্ঘদিন ধরে তৎপর। এদের সন্ত্রাসী তৎপরতায় আশেপাশের জনপদও অতিষ্ঠ। সোমবার রাতের ঘটনার পর ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সেখানে সামান্য ভাঙচুর চালিয়েছে।
Print
1045 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close