ঝিনাইদহে পুরোহিত হত্যায় শিবির নেতার স্বীকারোক্তি

এক্সপ্রেস ডেস্ক: ঝিনাইদহে পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এনামুল হক (২৫) নামের এক শিবির নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দিনগত রাত দুইটার দিকে ঢাকার গাবতলী থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায়।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ফাহমিদা জাহাঙ্গীরের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেয় এনামুল। ঝিনাইদহ শহরের ২ নং ওয়ার্ড শিবিরের সেক্রেটারি গ্রেফতারকৃত এনামুল হক সদর উপজেলার আড়মুখ গ্রামের ফজলুল হক জোয়ারদারের ছেলে। সে শহরের হামদহ মোল্লা পাড়ার বসবাস করতেন।
ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঝিনাইদহ পুলিশ পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী হত্যার সাথে জড়িত আসামি এনামুল হককে গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাকে আদালতে নেয়া হয়। আদালতে নেয়া হলে সে পুরোহিত হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়।
এনামুল আদালতকে জানায়, পুরোহিত হত্যা মিশন সফল করতে কেন্দ্রীয় শিবিরের নির্দেশে ঝিনাইদহে ৭ জন নেতা বৈঠক করে। এর মধ্যে ৩ জন পুরোহিত আনন্দ গোপাল হত্যা মিশনে অংশ নেয়। পুলিশের ভাষ্যমতে, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কালুহাটি গ্রামে খ্রিস্টান হোমিও চিকিৎসক সমির খাজা ও কালীগঞ্জের চাপালী গ্রামের শিয়া মতাদর্শে বিশ্বাসী আব্দুর রাজ্জাক হত্যার সাথে শিবির জড়িত বলেও এনামুল জানায়।
সাংবাদিক সম্মেলনে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ, সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোপিনাথ কানজিলাল ও সদরের ওসি হাসান হাফিজুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, গত ৭জুন ঝিনাইদহের কারাতিপাড়া গ্রাম থেকে বাইসাইকেলযোগে পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী পূজা-অর্চনা করার জন্য নলডাঙ্গা মন্দিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় সকাল ৯টার দিকে দুর্বৃত্তরা মহিষারভাগাড় নামক স্থানে তাকে জবাই করে হত্যা করে।
Print
772 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close