বেনাপোল চেকপোষ্টে প্রতিবন্ধী ও ক্যান্সার রোগীদের ট্যাক্স নেওয়ায় যাত্রীদের ক্ষোভ প্রকাশ

এক্সপ্রেস ডেস্ক: ভারত গমন প্রতিবন্ধী এবং ক্যান্সার রোগীর বেনাপোল চেকপোষ্টে ট্যাক্স নেওয়ায় রোগীরা এবং প্রতিবন্ধী যাত্রীর অভিভাবকরা ও সাধারন যাত্রীরা ক্ষোভ ও উদ্বিগ্ন প্রকাশ করেছে। চেকপোষ্টে কাষ্টমস কর্মকর্তারা ইতিপুর্বে কোন ধরনের প্রতিবন্ধী ,ক্যান্সার রোগী ও অন্ধদের নিকট থেকে ভ্রমন ট্র্যাক্স আদায় করত না।

সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে ভারত ভ্রমনকারি প্রতিবন্ধী, ক্যান্সার রোগী ও অন্ধদের নিকট থেকে ৫০০ টাকা ট্র্যাক্স নিয়ে তাদের অনুমতি দিচ্ছে। ভ্রমনকর ছাড়া কোন প্রকার তাদের ভারত গমনে ছাড় দেওয়া হচ্ছে না। ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ ও ট্যাক্স বাদে কোন পাসপোর্টে সীল মারছে না।

ইমিগেশন ওসি ইকবাল হোসেন জানান, আগে কাষ্টমস প্রতিবন্ধীদের ভারত যাওয়ার জন্য যাচাই বাছাই করে তাদের নাম পাসপোর্ট নং রেজিষ্টরে অন্তর্ভুক্ত করে ভ্রমন করের পরিবর্তে একটি স্লিপ দিত । বর্তমানে কাষ্টমস এটা তাদের প্রদান না করায় ইমিগ্রেশন ভ্রমন কর ছাড়া পাসপোর্টের আনুষ্ঠানিকতা করতে পারছে না।

বুধবার বেনাপোল চেকপোষ্ট কাষ্টমসে দেখা যায় প্রতিবন্ধী পাসপোর্ট যাত্রী বুরুদেব ঘোষ পাসপোর্ট নং-বিই ০৫০৬৫৭১ । সে যশোর জেলার কেশবপুর থানার মুজিদপুর গ্রামের আনন্দ মোহন ঘোষের ছেলে। অপরজন নভেরা এখলাছ পাসপোর্ট নং বিকে ০৩৪৭১৫১। সে নোয়াখালি জেলার এখলাছ মমিনের মেয়ে।

এরা অভিযোগ করেন ইতিপুর্বে এ পথে আমরা চিকিৎসার জন্য একাধিকবার ভারতে গিয়েছি । কিন্তু কোন ভ্রমন ট্যাক্স লাগে নাই। আমরা নতুন করে কর দেওয়ায় উদ্বিগ্ন । বেনাপোল চেকপোষ্টের নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক কাষ্টমস ইন্সপেক্টর বলেন প্রতিবন্ধী ক্যান্সার রোগীদের নিকট থেকে ভ্রমন কর নেওয়ায় আমরা ও উদ্বিগ্ন। আমরা চাই ভ্রমন কর এদের জন্য মওকুপ হোক।

সুত্র মতে ভারতীয় নাগরিকদের তাদের দেশে কোন পাসপোর্টযাত্রীর ভ্রমন কর নেওয়া হয় না। কিন্তু তাদের পাসেপোর্টে তাদের নিকট থেকে ও বাংলাদেশে ৫০০ টাকা ভ্রমন কর আদায় করা হয়। এ ব্যাপারে কাষ্টমস কমিশনার এ এফএম আব্দুল্লাহ খান বলেন, প্রতিবন্ধী এবং ক্যান্সার রোগীদের ট্র্যাক্স নিতে হবে কোন প্রজ্ঞাপন জারি আছে কিনা আমি ঠিক বলতে পারছি না।

Print
2296 মোট পাঠক সংখ্যা 4 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close