যশোরে ট্রেন কারের সংঘর্ষে নিহত ৪

এক্সপ্রেস ডেস্ক: যশোরে ট্রেনের সঙ্গে কারের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে চারজনে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত বাঁধনকে (১৩) বেলা দুইটার দিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনায় পাঠানো হয়েছে। হতাহতদের মধ্যে চারজন পরস্পর আত্মীয়। নিহতরা হলেন যশোরের কেশবপুর উপজেলার চাঁচড়াইল গ্রামের রেজাউল কবীর রাজু (৩৮), কারচালক কেশবপুরের বায়সা গ্রামের আব্দুল হাকিম (৩২), যশোর সদর উপজেলার তীরেরহাট গ্রামের নিত্যপদ দাসের ছেলে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া চয়ন (১৩) এবং তার দিদিমা জয়ারানী (৫৫) । আহত হয়েছেন নিহত চয়নের মা এবং বাঁধনের পিসি দীপিকারানী (৩৫) ।  আহত দীপিকা রানী জানান, তারা একটি কারে চেপে কেশবপুর থেকে যশোরের তীরেরহাটে যাচ্ছিলেন। পথে বারীনগর মথুরাপুরে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একটি ট্রেনের সঙ্গে তাদের গাড়ির সংঘর্ষ হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। যশোর রেলওয়ে পুলিশের (জিআরপি) আইসি ইদ্রিস আলী এবং এটিএসআই আজগর আলী জানান, সকালে খুলনা থেকে চিত্রা এক্সপ্রেস নামে ট্রেনটি ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। পথে বারীনগর এলাকায় মথুরাপুর রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে কারটির সংঘর্ষ হয়। তারা জানান, স্থানীয়রা আহতদের হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. কল্লোলকুমার সাহা তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত দু’জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্থানীয়রা জানান, সংঘর্ষের পর সেখানে একজন নারীর মরদেহ পড়ে ছিল। সেই লাশটিই হচ্ছে জয়ারানীর। তার মরদেহ হাসপাতালে আনা হয়নি। বর্তমানে সেটি দীপিকার শ্বশুরবাড়ি তীরেরহাটে রয়েছে বলে জানান স্থানীয় সাংবাদিক আমির হোসেন জুয়েল। কোতয়ালী থানার ওসি মো. ইলিয়াস হোসেন দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, চিকিৎসাধীন বাঁধনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় বেলা দুইটার দিকে তাকে খুলনায় রেফার করা হয়েছে। ঘটনাস্থল মথুরাপুরের বাসিন্দা আবদার রহমান জানান, প্রাইভেটকারটি যেখান দিয়ে ট্রেনলাইন পার হচ্ছিল, সেখানে কোনো গেট বা গেটম্যান নাই।

Print
1074 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close