যশোরে গুলিতে আহত ‘ডাকাতের’ মৃত্যু

এক্সপ্রেস ডেস্ক: যশোর সদর উপজেলার কানাইতলায় পুলিশের দাবি অনুযায়ী ‘ডাকাতিকালে’ গুলিতে আহত অজ্ঞাত ব্যক্তির (৪২) পরিচয় মিলেছে। তার নাম ফারুক হোসেন। তিনি যশোর সদরের দৌলতদিহি গ্রামের আবু বকরের ছেলে। নিহতের স্ত্রী তাসলিমা বেগম শনিবার সকালে ১০টার দিকে একজন ফটোসাংবাদিকের কাছে নিহতের ছবি দেখে তাকে শনাক্ত করেন।

পুলিশের দাবি, ডাকাতিকালে ডাকাতদের গুলিতেই তার মৃত্যু হয়। কিন্তু নিহতের স্ত্রী তাসলিমা বেগম জানান, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে নদীতে তার স্বামী পাট ধুচ্ছিলেন। ওইসময় পুলিশ পরিচয়ে দুটি মোটরসাইকেলে চারজন তাকে ধরে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার স্বামী ফারুক হোসেন নিখোঁজ ছিলেন। পুলিশ জানায়, শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে যশোর সদরের কানাইতলা এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। রাত সাড়ে তিনটার দিকে তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অবস্থার অবনতি হলে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। কোতোয়ালি থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন জানান, কানাইতলা এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা জবাব দেয়। তবে সে পুলিশের গুলিতে নয়- ডাকাতদের ছোড়া গুলিতে আহত হয়। পরে তাকে গুরুতর অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভোরে খুলনায় নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয় বলেও তিনি জানান। ওসি আরও জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৫টি রামদা, ৫০ হাত লম্বা দড়ি ও একটি ব্যাগ উদ্ধার করেছে।

Print
970 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close