পর্দার আড়ালের মদতদাতাদের খুঁজে বের করা কঠিন হবে না: সংসদে প্রধানমন্ত্রী

এক্সপ্রেস ডেস্ক: জঙ্গি ও সন্ত্রাসী হামলাকারী এবং তাদের মদত ও অর্থদাতাদের খুঁজে বের করার ব্যাপারে দৃঢ় আশাবাদ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এ ধরনের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের পাশাপাশি পর্দার আড়ালের মদতদাতা, পরিকল্পনাকারী, প্রশিক্ষণ প্রদানকারী ও অর্থ দিচ্ছে তাদের খুঁজে করা কঠিন হবে না। এটা সময়ের ব্যাপার ‍মাত্র।

বুধবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে সরকার দলের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বুধবার প্রশ্নোত্তরের প্রথম ৩০ মিনিট প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

জঙ্গি হামলার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, এর সঙ্গে যারা জড়িত আমাদের দেশের হোক বিদেশের হোক তাদের খুঁজে বের করা অবশ্যই আমাদের কর্তব্য। তাদেরকে খুঁজে বের করতে হবে।

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন পাওয়ার কথা জানিয়ে সংসদ নেতা বলেন, আমরা সবাই সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় একতাবদ্ধ। কাজেই বিশ্বাস করি অবশ্যই আমরা এদের ধরতে পারবো। উপযুক্ত ‍শাস্তি ইনশাল্লাহ আমরা দিতে পারব।

গোলাম দস্তগীর তার প্রশ্নে জানতে চান পর্দার আড়ালে থেকে যারা সন্ত্রাসী হামলাগুলো করাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব রাজনৈতিক মন্দার মধ্যে সরকার গঠন করার পরও বাংলাদেশ দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে এগিয়ে যায়। বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায়। এরপর ২০১৪ সালে নির্বাচন বানচাল ও ২০১৫ সালের অগ্নিসন্ত্রাস সবগুলো ঘটনাই বাংলাদেশের ভারমূর্তির প্রশ্নের সম্পূখিন করেছে। তবে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে অতি অল্প সময়ে আমরা এই অবস্থা মোকাবিলা করে দেশের ভাবমূর্তি উজ্ব্বল করতে সক্ষম হয়েছি। যারা বিদেশি বিনিয়োগকারী তাদের মাঝে আস্থা ও বিশ্বাস যাতে সৃষ্টি হয় সেই ব্যবস্থাও আমরা নিয়েছি। গুলশানে সাম্প্রতিক ঘটনা ঘটেছে তার জন্য বিদেশি প্রতিটি বন্ধু রাষ্ট্র নিন্দা জানিয়েছে। তারা বাংলাদেশের পাশে আছে এবং এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড মোকাবিলায় সব সময় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে। এ ধরনের ঘটনা বিশ্বব্যাপী ঘটছে এটাই বাস্তবতা।

সন্ত্রাসী হামলার প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে যারা এসব ঘটাচ্ছে তারা সত্যিকার অর্থে দেশের উন্নয়ন চায় না। দেশের অগ্রগতি চায় না। স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। না হলে এ ধরনের অমানবিক ঘটনা এভাবে বাংলাদেশ ঘটছে এটা সত্যি কল্পনার অতীত।

ঘটনায় ব্যবস্থা গ্রহণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের কয়েকজন ওইদিন মারা গেছে। বাকি কয়েকজনকে আমরা শনাক্ত করে ধরতে সক্ষম হয়েছি। এছাড়া টিভি ও সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকজনকে দেখানো হচ্ছে যাতে তাদের যারা শনাক্ত করতে পারে তারা যেন আমাদের জানান। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর কাছে এই তথ্যগুলি জানালে তাদের ধরে ব্যবস্থা নেওয়া যাবে।

এর আগে গোলাম দস্তগীর গাজীর তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য সরকার সব সময় যথাসম্ভব কাজ করে যাচ্ছে। বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে ইতোমধ্যে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।

সরকার দলের এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয়/বিভাগের সমন্বয়ে ইতোমধ্যে একটি খসড়া জাতীয় কৌশলপত্র তৈরি করা হয়েছে। কৌশলপত্র বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি সমন্বয় কমিটি থাকবে। এটি বর্তমানে সরকারের অনুমোদনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে। কৌশলপত্রটি অনুমোদিত হলে এর যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে শান্তিরক্ষী মিশনে বাংলাদেশের সুযোগ বৃদ্ধির সম্ভাবনা উন্মোচিত হবে।

এই প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, এ পর্যন্ত ৪০টি দেশে মোট ৫৫টি মিশনে সেনা, নৌ, বিমানবাহিনী, পুলিশ, বিজিবি ও আনসার ও ভিডিপি’র এক লাখ ৪৫ হাজার ২২৯ জন সদস্য অংশ নিয়েছে। বর্তমানে পুলিশের এক হাজার ১২৭ জন ও সশস্ত্র বাহিনীর ৭ হাজার ৩৫০ জন শান্তিরক্ষী মোতায়েন রয়েছে।

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান, বর্তমানে রেলওয়েতে ৮৬ হাজার কোটি টাকা ৭৩ লাখ টাকার ৪৩টি প্রকল্প চলমান রয়েছে। এসব প্রকল্পে চলতি ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ৯ হাজার ১১৪ কোটি ৯৬ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজমের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, দেশে বর্তমানে ২ লাখ ৮০ হাজার গৃহহীন পরিবার রয়েছে। আগামি ২ বছর ৮ ‍মাসের মধ্যে এসব গৃহহীন পরিবার পুনর্বাসনের কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে।

১৯৯৭ ‍সাল থেকে এ পর্যন্ত এক লাখ ৪০ হাজার পরিবারকে খাস জমিতে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে বলে সংসদ নেতা জানান।

Print
879 মোট পাঠক সংখ্যা 3 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close