জামায়াত নিষিদ্ধ হলেই জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে: শাহরিয়ার কবির

এক্সপ্রেস ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী রাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামী নিষিদ্ধ হলেই জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে। মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস তদন্তে গণকমিশনের শ্বেতপত্র প্রকাশ উপলক্ষে শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডির ডব্লিউভিএ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নির্বাহী সভাপতি শাহরিয়ার কবির।
‘বাংলাদেশে মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের ৮০০ দিন’ শিরোনামের ওই শ্বেতপত্রে রামুর ঘটনা থেকে শুরু করে বিএনপির হরতাল-অবরোধের সময় জ্বালাও- পোড়াও এবং সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার বিষয়গুলো স্থান পেয়েছে। এমনকি ১৫৩টি জঙ্গি সংগঠনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে।
শ্বেতপত্র প্রকাশের আগে গুলশান আর্টিজান রেস্তোরায় জঙ্গি হামলায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর শ্বেতপত্রের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
অনুষ্ঠানে শাহরিয়ার কবির বলেন, সম্প্রতি যত ঘটনাই ঘটেছে, সব ঘটনাই মওদুদিবাদী জামায়াত এবং তাদের দোসরদের দ্বারা সংঘটিত হয়েছে।|
সাম্প্রদায়িকতা, মৌলবাদ নির্মূলে জামায়াত নিষিদ্ধের বিকল্প নেই উল্লেখ করে শাহরিয়ার কবির বলেন, জামায়াতই আমাদের দেশের আইএস, এরাই আমাদের দেশের আল-কায়েদা। সাম্প্রতিক সন্ত্রাস ও জঙ্গি হামলার সঙ্গে জামায়াত সম্পৃক্ত বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
শ্বেতপত্র প্রকাশ ও আলোচনা অনুষ্ঠানে নির্মূল কমিটির উপদেষ্টা অজয় রায় বলেন, নিরীহ কিছু মানুষকে ধর্মের নামে হত্যা করা হচ্ছে। ইসলামের নামে মানুষ হত্যা করে ইসলামকে কখনও কি এগিয়ে নেওয়া গেছে প্রশ্ন করে তিনি বলেন, সত্যিকারের ইসলাম এগিয়ে যায়নি, মওদুদি ইসলাম এগিয়ে গেছে।

সাম্প্রতিক সময়ে গুলশানের ভয়াবহ হামলার কথা উল্লেখ করে অজয় রায় বলেন, যারা হামলা করেছে তারা প্রত্যেকেই মেধাবী ছাত্র, ধনী বা উচ্চ মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। এই মেধাবী ছাত্রদের ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে মস্তিস্ক বিকৃত করা হয়েছে।

মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস তদন্তে গণকমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা নির্বাহী পরিচালক (অব.) মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আবদুর রশীদ, শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, নির্মূল কমিটির সদস্য শামীম আখতার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জঙ্গিদের সঙ্গে হেফাজতের সম্পর্ক আছে বলেও অভিযোগ করা হয়। বক্তারা বলেন, হেফাজত নেতাদের যে জঙ্গি কানেকশন রয়েছে, সেটাও আমাদের অনেকের কাছেই অজানা। এটিও আলবদর, আলশামসের মতো সংগঠন। এই সংগঠন সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। এদের হেডকোয়ার্টার ছিল চট্টগ্রামে। এই দলের নেতারা আগে নেজামে ইসলাম করতেন।

Print
945 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About Jessore Express

Close