ফানুশের পৃথিবীতে মোমবাতির বহিশিখা ।

অভিযোগপত্র দেয়ার প্রায় ১০ মাসেও আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির বিরুদ্ধে সাংবাদিক হত্যা-চেষ্টার মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি শুরু হয়নি। একটি রিভিউ পিটিশনের কারণে তার মামলার মূল নথি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে রয়েছে। এজন্য শুনানি শুরু করা সম্ভব হচ্ছে না। আগামী ১৫ এপ্রিল ঢাকা মহানগর মূখ্য হাকিমের আদালতে (সিএমএম) মামলাটির অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

 

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

 

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য .

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

আমরা সবাই রাজা । তাই খাজনা দেই না

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

Iআদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।.

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

 

হাট্টীমা টিম টিম

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

কি সুন্দর তাই না ?

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।আদালত সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ২১ জুলাই শনিবার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় তৎকালীন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কার্যালয়ে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে তার বক্তব্য নিতে যান বেসরকারি টেলিভিশন ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই ইন্ডিপেন্ডেন্টের দুই সাংবাদিক। এ সময় রনি ও তার সহযোগীরা ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনর সিনিয়র রিপোর্টার ইমতিয়াজ সনি ও ক্যামেরাপারসন মহসিন মুকুলকে মারধর করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

Print
387 মোট পাঠক সংখ্যা 1 আজকের পাঠক সংখ্যা

About admin

Leave a Reply

Close